আজ | শনিবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৯
Search

পেসারদের চাপ তৈরি শেখাতে চান ল্যাঙ্গেভেল্ট

২:১৮ অপরাহ্ন, ১ সেপ্টেম্বর, ২০১৯

chahida-news-1567325894.jpg

বাংলাদেশে আসার পর নতুন পেস বোলিং কোচ চার্ল ল্যাঙ্গেভেল্ট প্রথম মিশনেই দেশসেরা পেসার মোস্তাফিজুর রহমানকে পাচ্ছেন না। একমাত্র টেস্টে প্রতিপক্ষ আফগানিস্তান। তবে শিষ্যরা যেভাবে শেখার চেষ্টা করছেন তাতে খুশি দক্ষিণ আফ্রিকার সাবেক এই পেসার।

তার ধারণা, বাংলাদেশের পেসাররা শুধুই উইকেট পাওয়ার চিন্তা করে। কিন্তু ল্যাঙ্গেভেল্ট মনে করছেন, প্রতিপক্ষের ওপর চাপ তৈরি করাই সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ। তার কাছে টানা ১২টি বল এক জায়গায় করতে পারার নামই ধারাবাহিকতা। আর এটা করতে পারলে নাকি উইকেট এমনিতেই চলে আসবে।

নিজেদের মধ্যে দু’দিনের প্রস্তুতি ম্যাচ শেষে শনিবার মিরপুর শেরেবাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে পেসারদের নিয়ে ল্যাঙ্গেভেল্ট বলেন, ‘এখন পর্যন্ত যা দেখছি সেটা সন্তোষজনক। প্রস্তুতি ম্যাচের প্রথমদিনে আমি চিন্তিত হয়ে পড়েছিলাম। কিন্তু এখন মনে হচ্ছে আমি কীভাবে কাজ করতে চাই সেটা তারা ধরতে পেরেছে।’

এদিকে মোস্তাফিজের ব্যাপারে যত্নবান হতে বললেন ল্যাঙ্গেভেল্টও। টেস্টে তাকে মিস করবেন বোলিং কোচ। তিনি বলেন, ‘যদি কেউ মোস্তাফিজকে মিস না করে তাহলে বুঝতে হবে তার সমস্যা আছে। আমাদের এ ধরনের পরিস্থিতির সঙ্গেও মানিয়ে নিতে হবে। বিকল্প খেলোয়াড় নিশ্চিত করতে হবে।

সামান্য চোট থাকলেও এ অবস্থায় খেললে সেটা আরও খারাপের দিকে নিয়ে যেতে পারে। তাই একটি ম্যাচ খেলার চেয়ে সামনে ত্রিদেশীয় সিরিজে তাকে পেতে চেয়েছে সবাই।’ তাসকিনকে নিয়ে তিনি বলেন, ‘প্রস্তুতি ম্যাচের আগেই তাকে নিয়ে বেশ উৎসাহী ছিলাম। প্রথমদিকে ভালো বোলিং করেছে সে, কিন্তু দ্বিতীয় নতুন বলে তাকে সংগ্রাম করতে হয়েছে। এটা হয়তো বেশি ক্রিকেট খেলতে না পারার কারণে হয়েছে।’

খেলোয়াড়রা খুব দ্রুত শিখছেন বলে মনে করছেন ল্যাঙ্গেভেল্ট।

তিনি বলেন, ‘তারা খুব দ্রুত শিখছে বলে আমি আনন্দিত। তাদের প্রতি বল থেকেই উইকেট নেয়ার চেষ্টা দেখছি। আমার কাছে সবচেয়ে বড় ব্যাপার একই ধারায় টানা ১২ বল করতে পারা। তাহলেই আমরা চাপ প্রয়োগ করতে পারব, ১২টি ডট বল স্বাভাবিকভাবেই আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে উইকেট এনে দেবে।

কিন্তু এই কন্ডিশনে কাজটি পেসারদের জন্য খুবই কঠিন।’ তিনি বলেন, ‘ভালো লেন্থে ধারাবাহিকভাবে বোলিং করাটাই টেস্ট ক্রিকেট। ফিল্যান্ডারের (দক্ষিণ আফ্রিকার পেসার) মতো ভালো বোলার খুব দ্রুতগতির নয়, কিন্তু লেন্থে সে খুবই ধারাবাহিক।’

টেস্টে বেশি পেসার খেলানোর জন্য অধিনায়ককে পরামর্শ দেবেন কি না জানতে চাইলে ল্যাঙ্গেভেল্ট বলেন, ‘আমি একজন পেসার হিসেবে সব সময়ই চাই ফাস্ট বোলাররা খেলুক। কিন্তু কন্ডিশন অবশ্যই বুঝতে হবে। যদি অধিনায়ক অনুভব করেন যে কয়েকজন সিমার খেলাবেন সেটা পুরোপুরি সাকিবের ব্যাপার।’

এখন পর্যন্ত পেসাররা তার কাছে শেখার আগ্রহটা দেখাচ্ছে। বাংলাদেশের বোলারদের কোন জায়গা নিয়ে বেশি কাজ করছেন জানতে চাইলে ল্যাঙ্গেভেল্ট বলেন, ‘আমি ধারাবাহিকতার ব্যাপারে বেশি মনোযোগী। কিছু ছেলে বল হাতে ধারাবাহিকতা রাখতে সচেষ্ট। তারা সেই দক্ষতা অর্জন করেছে, কিন্তু তারা সবাই উইকেট নিতে চায়। এটা টেস্ট ক্রিকেট নয়। টেস্ট ক্রিকেট হচ্ছে আপনাকে অবশ্যই ধারাবাহিক হতে হবে।’

  

আপনার মন্তব্য লিখুন