আজ | শনিবার, ১১ জুলাই ২০২০
Search

ছিনতাইকারীরা খরচ করে ফেলেছে ২০ লাখ টাকা

চাহিদা নিউজ ডেস্ক | ৫:৪৫ অপরাহ্ন, ২ জুন, ২০২০

chahida-news-1591098356.jpg

অবশেষে উন্মোচিত হলো ন্যাশনাল ব্যাংকের রেমিটেন্সের ৮০ লাখ টাকা খোয়ার রহস্য। গোয়েন্দা পুলিশের হাতে গ্রেফতার হয়েছে ৪ ছিনতাইকারী। উদ্ধার হয়েছে ৬০ লাখ টাকা। জব্দ করা হয়েছে অস্ত্র ও গুলি।

গত ১০ মে দিনে দুপুরে ন্যাশনাল ব্যাংকের রাজধানীর নথব্রুক শাখা থেকে টাকা তুলে ইসলামপুর শাখায় টাকা জমা দিতে রওনা হয় ব্যাংকের টাকা ভর্তি গাড়ি। ইসলামপুর শাখায় গাড়িটি পৌঁছালে ব্যাংক কর্মকর্তা সিকিউরিটি অফিসারকে নিয়ে শাখার ভেতরে চলে যান। ফিরে এসে টাকা জমা দেয়ার প্রস্তুতি নেয়ার সময় তাদের নজরে আসে ৮০ লাখ টাকা ভর্তি একটি বস্তা গায়েব। ঘটনার পরপরই কোতয়ালী থানায় লিখিত অভিযোগ করে কর্তৃপক্ষ।

এ ঘটনা তদন্তে পুলিশের পাশাপাশি মাঠে নামে গোয়েন্দা পুলিশ। সিসিটিভি ফুটেজ ও তদন্তে বের হয়ে আসে টাকা ছিনতাইয়ের চাঞ্চল্যকর ঘটনা। আর ২১ দিনের মাথায় ডিবির হাতে ধরা পড়ে ৮০ লাখ টাকা ছিনতাইয়ের মূলহোতাসহ ৪ ছিনতাইকারী।

মঙ্গলবার গণমাধ্যমকে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের যুগ্ম কমিশনার মাহবুবুর রহমান জানান, মো. হান্নান ওরফে ব্রিফকেস হান্নান, মোস্তফা, বাবুল মিয়া ও মোছাম্মৎ পারভীনই ন্যাশনাল ব্যাংকের ৮০ লাখ টাকা ছিনতাইয়ের কারিগর। এ ৪ জন সংঘবদ্ধ চক্র হিসেবে বিভিন্ন সময় ধরনের অপরাধে লিপ্ত ছিল। গ্রেফতারের সময় তাদের কাছ থেকে ৬০ লাখ টাকা, অস্ত্র ও গুলি উদ্ধার করা হয়। তবে বাকি ২০ লাখ টাকা আসামিরা খরচ করে ফেলেছে বলে জানানো হয়।

জানা যায়, ঘটনার দিন টাকা ভর্তি গাড়িটিকে নথ ব্রুক শাখা থেকেই অনুসরণ করে ছিনতাইকারীরা। ইসলামপুর শাখায় পৌঁছালে সেখানে সক্রিয় হয়ে উঠে দলনেতা হান্নানসহ ২ অপরাধী। ব্যাংক কর্মকর্তা সিকিউরিটি অফিসারদের নিয়ে শাখার ভেতরে প্রবেশ করার পরপরই, গাড়ির দায়িত্বে থাকা সিকিউরিটিকে কথায় ব্যস্ত রাখে সেখানে আগে থেকে থাকা ছিনতাইকারী চক্রের সদস্যরা। সিকিউরিটির অন্যমনস্কতার সুযোগে দলনেতা হান্নান গাড়ির গেট খুলে টাকার বস্তা চুরি করে। মূলহোতা হান্নানের নামে দেশের বিভিন্ন থানায় মামলা রয়েছে।

  

আপনার মন্তব্য লিখুন