আজ | বুধবার, ২০ নভেম্বর ২০১৯
Search

লাইসেন্স না থাকলেই ছয় মাসের জেল

চাহিদা নিউজ ডেস্ক | ৯:৪১ অপরাহ্ন, ৩১ অক্টোবর, ২০১৯

chahida-news-1572536485.png
প্রতিকী ছবি

বহুল আলোচিত সড়ক পরিবহন আইন-২০১৮ এর নতুন আইন অবশেষে কার্যকর হতে যাচ্ছে ১ নভেম্বর শুক্রবার থেকে। নতুন আইনে সব ধারায় আগের চেয়ে সাজা বাড়ানো হয়েছে। ফলে আইনটি কার্যকর হলে সড়কে বিশৃঙ্খলা ও দুর্ঘটনা কমে আসবে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা।

প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, আইনে আপাতত কোনো পরিবর্তন বা সংশোধন নেই। সংশোধনের বিষয়টি পরে বিবেচনায় নেওয়া হতে পারে। তবে প্রজ্ঞাপনে সংশোধনের সুযোগ রাখায় আইন কার্যকর নিয়ে সাধারণ মানুষ সন্দিহান রয়েছে। তারা বলছেন, এ সুযোগ রেখে আইন সংশোধন করার পথ রেখে দিলো সরকার।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, আইনটি কার্যকর করতে শুক্রবার থেকে মাঠে থাকবে ভ্রাম্যমাণ আদালত। পাশাপাশি গাড়ির কাগজপত্র ও ড্রাইভিং লাইসেন্সসহ অন্য সব কাগজপত্র যাচাইয়ে পুলিশেরও তৎপরতা আগের চেয়ে বাড়ানো হবে।

সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগের প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, ‘সড়ক পরিবহন আইন, ২০১৮ এর ধারা ১ এর উপধারা (২) এ দেওয়া ক্ষমতাবলে সরকার ১ নভেম্বর থেকে আইন কার্যকর হওয়ার তারিখ নির্ধারণ করল।’ ফলে আইনটি সংশোধন বা পরিবর্তন ছাড়াই কার্যকর হতে যাচ্ছে।

নতুন সড়ক পরিবহন আইনে সড়ক দুর্ঘটনায় প্রাণহানির দায়ে সর্বোচ্চ পাঁচ বছর শাস্তির বিধান রাখা রয়েছে। এতে বলা হয়েছে, ‘দণ্ডবিধির ৩০৪-বি ধারায় যাই থাকুক না কেন, কোনো ব্যক্তির বেপরোয়া বা অবহেলাজনিত মোটরযান চালনার কারণে সংঘটিত কোনো দুর্ঘটনায় কোনো ব্যক্তি গুরুতরভাবে আহত বা নিহত হলে চালক সর্বোচ্চ পাঁচ বছরের কারাদণ্ড বা সর্বোচ্চ পাঁচ লাখ টাকা জরিমানা অথবা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত হবে’। একই সঙ্গে এটি জামিন অযোগ্য অপরাধ হিসেবে গণ্য করা হবে। আইনে পেশাদার-অপেশাদার চালকের ড্রাইভিং লাইসেন্স না থাকলে অনধিক ছয় মাসের জেল বা ৫০ হাজার টাকা জরিমানা অথবা উভয় দণ্ড দেওয়ার বিধান থাকছে।

  

আপনার মন্তব্য লিখুন