আজ বৃহঃস্পতিবার, ১৩ ডিসেম্বর ২০১৮ |
Search

প্রচ্ছদ ঢালিউড বাংলাদেশ আমার আরেকটি বাড়ি : দেবশ্রী রায়

৪৩৫  বার পড়া হয়েছে

বাংলাদেশ আমার আরেকটি বাড়ি : দেবশ্রী রায়

রূপালী আলো প্রতিবেদক | ২:৩৯ অপরাহ্ন, ১০ আগস্ট, ২০১৭

  

uploaded-file-1447237875.jpg
দেবশ্রী রায়


টালিগঞ্জের দর্শকপ্রিয় অভিনেত্রী দেবশ্রী রায় চার দশক ধরে অভিনয় করছেন। সব শ্রেণির দর্শক তার রূপ, গুণ ও অভিনয়ে মুগ্ধ। চলতি সপ্তাহে তিনি বাংলাদেশে এসেছিলেন। বন্দরনগরী চট্টগ্রামে দুই বাংলা প্রযোজিত ‘হঠাত দেখা’ ছবিতে অভিনয় করেছেন। তার অভিনীত এ ছবিটি বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের জন্মজয়ন্তী উপলক্ষে আগামী ২৫ বৈশাখ মুক্তি পাবে। কবিগুরুর ‘হঠাত দেখা’ কবিতা অবলম্বনে এটি নির্মিত হচ্ছে। তাকে নিয়ে রূপালী+ এর আয়োজন


আপনি কি এর আগে চট্টগ্রামে গিয়েছিলেন?
এর আগে বেশ কবার বাংলাদেশে এসেছি। কিন্তু চট্টগ্রামে কখনো যাওয়া হয়নি। এবারের যাত্রায় চট্টগ্রাম দেখে গেলাম।
চট্টগ্রাম সম্পর্কে আপনার আগে কি জানাশোনা ছিল?
হ্যাঁ। আমি শৈশব থেকেই চট্টগ্রাম সম্পর্কে অনেক কিছু জানি। আমার বাবা-মায়ের কাছে চট্টগ্রামের অনেক ইতিহাস শুনেছি। আমার দাদু একসময় চট্টগ্রামে কাজ করতেন। তা ছাড়া আমার মায়ের বাড়ি বাংলাদেশের ঈশ্বরদীতে। সব মিলিয়ে বাংলাদেশকে আমার আরেকটি বাড়ি বলে মনে হচ্ছে।
চট্টগ্রামকে কেমন দেখলেন?
আমি প্রতিবারই বাংলাদেশ যাত্রায় মুগ্ধ হয়ে দেশে ফিরি। এবারো এর ব্যতিক্রম ঘটেনি। চট্টগ্রাম শহরকে দেখে অনেকটা কলকাতার মতো মনে হয়েছে। এ যেন আমার নিজের শহর। চট্টগ্রামে গিয়ে আমি শুধু তাজা মাছ আর শুঁটকি খেয়েছি। এখানকার শুঁটকির গল্প অনেক শুনেছি। এবার নিজে স্বাদ গ্রহণ করলাম।
আপনার দীর্ঘ চলচ্চিত্র ক্যারিয়ার সম্পর্কে বলুন-
এ পর্যন্ত আমি ৩০০ ছবিতে অভিনয় করেছি। তবে সব ছবির নাম বলতে পারব না। সংগত কারণে আগের ছবির সঙ্গে এখনকার ছবির কিছুটা ব্যবধান আছে। আগের ছবি সামাজিক প্রেক্ষাপটে নির্মিত হতো। এখন রবীন্দ্রনাথ কিংবা অন্য কারো কোনো গল্প বাছাই করে ছবি হচ্ছে। দর্শকও তা আগ্রহভরে দেখছেন। সময়ের কারণে এমন চাহিদা তৈরি হচ্ছে।
টালিগঞ্জের নতুন অভিনেতা-অভিনেত্রীদের সম্পর্কে বলুন-
নতুনদের সম্পর্কে কোনো মন্তব্য করতে চাই না। কারণ ওদের ছবি আসলে খুব একটা দেখা হয় না। তা ছাড়া নিজেও কলকাতার ছবি কবে দেখেছি, তা ভুলে গেছি। এ কারণে কাউকে আলাদা করে মূল্যায়ন করা কঠিন হচ্ছে।
‘হঠাৎ দেখা’ ছবিটি কেমন?
রবিঠাকুরের ‘হঠাৎ দেখা’ কবিতাটি পড়লে যে কেউ মুগ্ধ হবেন। এ কবিতার প্রতিটি লাইনের আড়ালে ভালোবাসার এক চিরন্তন গল্প ফুটে উঠেছে। রুপালি পর্দায় এ গল্পটিই আমরা জীবন্ত করে তুলে ধরছি।
আপনি তো খুবই পশুপ্রেমী। এ সম্পর্কে কিছু জানতে চাই।
ব্যক্তিগতভাবে আমি কুকুর খুব ভালোবাসি। স্বনামে আমার একটি ফাউন্ডেশন রয়েছে। এখান থেকে আমরা কুকুরের সেবা করি। এ ছাড়া আমাদের ১৬, ২০ ও ২৪ বছর বয়সী তিনটি হাতি আছে। তার মধ্যে তুলনামূলক কম বয়সী হাতিটিকেই আমার পছন্দ।
বাংলাদেশের অভিনয়শিল্পীদের সম্পর্কে বলুন।
এ দেশের খ্যাতিমান অভিনেতা আলমগীর ভাইয়ের সঙ্গে আমার যোগাযোগ আছে। তিনি আমার ভালো বন্ধুও বটে। ‘মায়ের আশীর্বাদ’ ছবির পর থেকে তার সঙ্গে আমার পরিচয়। অন্যদিকে এবারের ছবির মাধ্যমে আরেক জনপ্রিয় অভিনেতা ইলিয়াস কাঞ্চন সাহেবকে পেলাম। এ ছাড়া রাজ্জাক ভাই, ববিতা, শাবানা, কবরী, মৌসুমীসহ অনেক গুণী অভিনেতা আর অভিনেত্রী বাংলাদেশে রয়েছেন।

  

Post Your Comment